মুরাদের ইঙ্গিতেই রায়হান হত্যা : দাবি এলাকাবাসীর

মুরাদের ইঙ্গিতেই রায়হান হত্যা : দাবি এলাকাবাসীর


রায়হান হত্যায় এবার বের হয়ে আসলো চাঞ্চল্যকর তথ্য। এ হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে ছিলেন সিলেটের নাট্যাভিনেতা গ্রীন বাংলার বেলাল আহমদ মুরাদ। অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে থাকা এ বিরল তথ্য।

অভিযোগে আছে, আখালিয়ায় রায়হানের বাড়ির একটু অদূরে অপর মহল্লায় গ্রীণবাংলার নাট্যকার মুরাদের বাড়ি। নাটক ও অভিনয়ের নামে আখালিয়ার একটি বাড়িতে প্রায়ই জমতো মদ ও নারী নিয়ে অশ্লীল মধুচক্র। আসরটি পরিচালনা করতো অন্য মহল্লার মুরাদ ওরফে জিলাপি মুরাদ। কোমলদেহী জিলাপির স্বাদ নিতে আসরে প্রায়ই অংশ নিতেন সিলেটের বন্দর বাজার পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ তরুণ এআই আকবর ভুইয়া। হাতে ওয়্যারলেস থাকায় পুলিশের তৎপরতার সকল বার্তা বেজে ওঠতো তার ওয়্যালেসে। তাই নিরাপদ ও নির্বিঘ্নে চলতো এই মধুচক্র। যুবলীগ নেতা জগৎজ্যোতি হত্যামামলার আসামীও ছিলেন এই মুরাদ-এমন অভিযোগও রয়েছে।

মুরাদের নেতৃত্বে জমজমাট নারী মধুচক্রের প্রতিবাদী ছিলেন প্রতিবেশী রায়হান। কিন্তু পুলিশের এসআই আকবর জড়িত থাকায় কিছুই করতে পারতেন না রায়হান ও এলাকার প্রতিবাদীরা। বিষয়টি নিয়ে উর্ধ্বতন মহলে যাওয়ার চেষ্ঠায় ছিলেন রায়হান ও প্রতিবাদী লোকজন। এ খবর ফাঁস হয়ে গেলেই মুরাদ ও এসআই আকবর মিলে রায়হানকে ভুয়া ছিনতাইকারী সাজিয়ে পরিকল্পিতভাবে খুন করে বলে এলাকাবাসী ধারণা করছেন ।

তথ্যদাতা এলাকাবাসীর দাবি-বেলাল আহমদ মুরাদকে গ্রেফতারের মাধ্যমে আসল তথ্য বের হয়ে আসতে পারে।

মন্তব্য