ভারতে মুসলিম তরুণীকে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যা

ভারতে মুসলিম তরুণীকে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যা


আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় ভারতে ২০ বছর বয়সী মুসলিম তরুণী গুলনাজ খাতুনকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে শাতিশ কুমার রায় এবং তার সঙ্গীরা। গুলনাজের পরিবার এ তথ্য জানিয়েছে।

ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় বিহার রাজ্যের ভাইশালি জেলায় নৃশংস এ ঘটনা ঘটে। নির্মম এ হত্যাকাণ্ডের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে গুলনাজের জন্য ন্যায়বিচারের দাবি জানিয়েছেন অনেক রাজনৈতিক নেতা, নারী অধিকারকর্মী এবং সাধারণ মানুষ।৩০ অক্টোবর বিহারের রসুলপুর গ্রামে গুলনাজের শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় অভিযুক্তরা। রোববার (১৫ নভেম্বর) তিনি মারা যান।

পরিবারের অভিযোগ, পুলিশ অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণে অবহেলা করেছে। চিহ্নিত দোষীরা হলো: শাতিশ কুমার রায়, চন্দন এবং বিনোদ রায়।৭৫ শতাংশ দগ্ধ অবস্থায় গুলনাজকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরবর্তীতে রাজ্যের সবচেয়ে বড় হাসপাতাল পাটনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাকে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তিনি মারা যান।

তার পরিবার জানায়, গুলনাজের অন্যত্র বিয়ে ঠিক হয়েছিল। তাদের অ্যাংগেজমেন্টও সম্পন্ন হয়। চার মাস পরে বিয়ের দিন ধার্য ছিল।ভুক্তভোগীর পরিবার জানায়, গুলনাজকে শাতিশ কুমার বিয়ের জন্য উত্যক্ত করত। কিন্তু ভিন্নধর্মের কাউকে বিয়ে করতে পারবেন না বলে তা প্রত্যাখ্যান করেন গুলনাজ। প্রস্তাব ফিরিয়ে দেওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে শাতিশ ও তার সঙ্গীরা তাকে হত্যা করে।স্থানীয় গণমাধ্যম জানায়, বাড়ির পাশে লাকড়ি কুড়াতে গিয়েছিলেন গুলনাজ। সেখানে একা পেয়ে শাতিশ এবং সঙ্গীরা তাকে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়ে হত্যা করে।

মন্তব্য